দেশজুড়ে

মাহে রমজানের দ্বিতীয় দশ দিন মাগফিরাতের।

ডেস্ক রিপোর্ট

৩১ মার্চ ২০২৩ , ৩:৫১:৫১ প্রিন্ট সংস্করণ

 

হাফিজ মাছুম আহমদ দুধরচকী:রহমত, মাগফিরাত ও নাজাতের মাস রমজানুল মোবারক চলছে। আজ থেকে শুরু হলো মাগফিরাতের দশক। মাসব্যাপী সিয়াম সাধনার দ্বিতীয় ১০ দিনকে বলা হয় মাগফিরাতের দশক। অর্থাৎ ১১ থেকে ২০ রোজা পর্যন্ত মাগফিরাত, যার অর্থ ক্ষমা। রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘রমজানের প্রথম ১০ দিন রহমতের,দ্বিতীয় ১০ দিন মাগফিরাত লাভের এবং তৃতীয় ১০ দিন জাহান্নাম থেকে মুক্তিলাভের।’ (মিশকাত) এ মাসে যখন একজন রোজাদার সারা বছরের নেকি ও পুণ্যের ঘাটতি পূরণের জন্য আপ্রাণ চেষ্টা-সাধনা চালিয়ে যান এবং মাগফিরাতের ১০ দিনও অতিবাহিত করেন, তখন আল্লাহ তার গুনাহ-খাতা মাফ করে দেন। মাহে রমজানের প্রতি দিন-রাতেই অনেক মানুষকে জাহান্নাম থেকে মুক্তি দেওয়া হয় এবং দোয়া কবুল হয়। রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘মাহে রমজানের প্রতি রাতেই একজন ফেরেশতা ঘোষণা করতে থাকেন, ‘হে পুণ্য অন্বেষণকারী! অগ্রসর হও। হে পাপাচারী! থামো, চোখ খোলো।’ তিনি আবার ঘোষণা করেন, ‘ক্ষমাপ্রার্থীকে ক্ষমা করা হবে। অনুতপ্তের অনুতাপ গ্রহণ করা হবে। প্রার্থনাকারীর প্রার্থনা কবুল করা হবে।’

এ মাসে আল্লাহর দরবারে মাগফিরাত কামনা করলে, গরিব-দুঃখীদের প্রতি দান-সদকার পরিমাণ বাড়িয়ে দিলে, নিজে সব ধরনের খারাপ কাজ পরিহার করলে, আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের জন্য ইবাদত-বন্দেগি, জিকির-আসকার, তাসবিহ-তাহলিল, কোরআন তিলাওয়াত ও দোয়া-ইস্তেগফার করলে, মহান আল্লাহ তা অবশ্যই কবুল করেন। রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘এ মাসে চারটি কাজ অবশ্যকরণীয়। দুটি কাজ এমন যে, তার দ্বারা তোমাদের প্রতিপালক সন্তুষ্ট হন। অবশিষ্ট দুটি এমন, যা ছাড়া তোমাদের কোনো গত্যন্তর নেই। এই চারটির মধ্যে একটি হলো কালেমায়ে শাহাদাত পাঠ করা, দ্বিতীয়টি হলো অধিক পরিমাণে ইস্তেগফার বা ক্ষমা প্রার্থনা করা। এ দুটি কাজ আল্লাহর দরবারে অতি পছন্দনীয়। তৃতীয় ও চতুর্থ হলো জান্নাত লাভের আশা করা ও জাহান্নাম থেকে পরিত্রাণের প্রার্থনা করা। এ দুটি এমন বিষয়, যা তোমাদের জন্য একান্ত প্রয়োজন।’ (ইবনে খুজাইমা)

মাতৃগর্ভ থেকে মানুষ যেভাবে নিষ্পাপ অবস্থায় ভূমিষ্ঠ হয়, মাহে রমজানের ৩০ দিন যথাযথভাবে রোজা পালন করলে তেমন নিষ্কলুষ হয়ে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে। এসব মুমিন বান্দার মাগফিরাত ও নাজাতপ্রাপ্তি সম্পর্কে রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘যারা রমজানের চাঁদের প্রথম দিন থেকে শেষ দিন পর্যন্ত রোজা রেখেছে, তারা সেদিনের মতোই নিষ্পাপ হয়ে যাবে, যেদিন তাদের মাতা তাদের নিষ্পাপরূপে জন্ম দিয়েছেন।’ তিনি আরও বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি রমজান মাস পেয়ে নিষ্পাপ হতে পারল না, তার মতো হতভাগ্য এই জগতে আর কেউ নেই।’ সিয়াম সাধনার মধ্যে কোনোরকম ভুলত্রুটি হয়ে গেলে তৎক্ষণাৎ তওবা ও ইস্তেগফার করে নিজেদের সংশোধন করে নেওয়া দরকার। আল্লাহ তায়ালা বলেন, ‘আর তিনিই (আল্লাহ) তার বান্দাদের তওবা কবুল করেন এবং পাপগুলো ক্ষমা করে দেন।’ (সূরা আশ শুরা :১৫)

অতএব, মুমিন বান্দাদের উচিত, মাগফিরাতের দশকটি আমল-ইবাদত, প্রার্থনা-মোনাজাতে কাটিয়ে আল্লাহ তায়ালার ক্ষমালাভে ধন্য হওয়া, মহান আল্লাহ তায়ালা আমাদের সকলকে আমল করার তৌফিক দান করুন আল্লাহুম্মা আমিন।

লেখক: বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ লেখক ও কলামিস্ট হাফিজ মাছুম আহমদ দুধরচকী ছাহেব।

শেয়ার করুন:

আরও খবর

শেখ হাসিনার নৌকা প্রতীককে উলঙ্গ বলে কটুক্তি করলেন বাকেরগঞ্জের ইউপি চেয়ারম্যান হানিফ তালুকদার।।

শেখ হাসিনার নৌকা প্রতীককে উলঙ্গ বলে কটুক্তি করলেন বাকেরগঞ্জের ইউপি চেয়ারম্যান হানিফ তালুকদার।।

টঙ্গীতে ছাত্রলীগ কর্মী আসাদ শিকদারের সংবাদ সম্মেলন

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ নাট্যশিল্পী সমিতির উদ্যোগে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান প্রধান অতিথি পারভীন ওসমান ফাতেমা আক্তার মাহমুদা ইভা : মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ নাট্যশিল্পী সমিতির আয়োজনে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি পারভীন ওসমান ও প্রধান আলোচক জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার মহাসচিব খন্দকার মাসুদুর রহমান দিপু। ২৫ ডিসেম্বর সোমবার সন্ধা ৬টায় ২০২৩ নারায়ণগঞ্জ নাট্যশিল্পী সমিতির আয়োজনে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে জাঁকজমকপূর্ণভাবে এ আয়োজন অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মাসুদ রানা মিন্টুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য পারভীন ওসমান। এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ওসমান পরিবারের পুত্রবধু প্রয়াত নাসিম ওসমানের সহধর্মীনী জনাবা পারভীন ওসমান। প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার মহাসচিব ও দৈনিক অপরাধ রিপোর্ট পত্রিকার সম্পাদক খন্দকার মাসুদুর রহমান দিপু। এ সময় সভায় সাংবাদিক সোনিয়া দেওয়ান প্রীতির সঞ্চালনায় এবং সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মাসুদ রানা মিন্টুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রতিষ্ঠাতা সভাপতিত্বে। বিশেষ অতিথি হিসেবে উস্থিত ছিলেন ল্যাব এ্যাইড নারায়ণগঞ্জ শাখার ব্যাঞ্চ ম্যানেজার মাকসুদুল আলম সোহেল। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য পারভীন ওসমান। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বলেন রাজাকার আলবদরদের কাছ থেকে বাংলাদেশ স্বাধীন করতে যিনি অগ্রনী ভুমিকা রেখেছিলেন তিনি আমার মহান নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। লাখো শহীদের রকেতর বিনিময়ে অর্জিত এই স্বাধীনতা। তিনি আরো বলেন আগামী ৭ জানুয়ারী দেশে দ্বাদশ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে সেখঅনে আমার ভোট আমি দিবো যাকে খুশি তাকে দিবো কিন্তু দেশের উন্নয়নের স্বার্থে আমরা নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে পুনরায় জননেত্রী শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাই। দেশে অনেক উন্নয়ন হয়েছে আর উন্নয়নের ধঅরাবাহিকতা বজায় রাখতে শেখ হাসিনার বিকল্প হতে পারে না। পরিশেষে তিনি আরো বলেন আমিও রাজনীতি পরিবারের মেয়ে এবং আমার বিয়ে হয়েছে রাজনীতি পরিবারে। নারায়ণগঞ্জে ওসমান পরিবারের যে পরিবারের আমি পুত্র বধু হতে পেরে আমি নিজেকে ধন্য মনে করি। আমার স্বামি প্রয়াত নাসিম ওসমান স্মরনে একটি সেতু হয়েছে তাই প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার আর কোন চাওয়া পাওয়া নেই। সভাশেষে তিনি কিছুক্ষন আয়োজিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন। এই সময় আরো উপস্থিত ছিলেন এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মানবাধিকার কর্মী, রোটারিয়ান ও সুলতান আহমদ মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশনের সভাপতি ফেরদৌসী আক্তার রেহানা, আওয়ামী মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আবুল কালাম ফেরদৌস। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সাংগঠনের সাধারণ সম্পাদক হক সোহেল,জাতীয় সংস্থা সাংকেতিক সম্পাদক খোকন, কাব্য সাহিত্য ও সংস্কৃতি চর্চা শফিকুল ইসলাম আরজু, জাতীয় সংস্থা সহ মহিলা সম্পাদক এবং সদর উপজেলা প্রেসক্লাব পচারক সম্পাদক ফাতেমা আক্তার মাহমুদা ইভা, আলোচনা সভা শেষে দেশাত্মবোধক গান ও নৃত্য পরিবেশন করেন সংগঠনের শিল্পীবৃন্দ ও অতিথি শিল্পীগণ।

জালালাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উদ্যোগে মাতৃভাষা দিবসে শহীদ মিনারে বিনম্র শ্রদ্ধা

ঈদগাঁও উপজেলা ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল ও পথসভায় বক্তারা

মুরাদনগরে সুতার গোডাউনে আগুনে ক্ষতি প্রায় অর্ধ কোটি

Sponsered content