আন্তর্জাতিক

কাতারে তিন দিনব্যাপী ‘বাংলাদেশ ট্রেড ফেয়ার কাতার ২০২৪’ এর উদ্বোধন

কাতারে তিন দিনব্যাপী ‘বাংলাদেশ ট্রেড ফেয়ার কাতার ২০২৪’ এর উদ্বোধন

মোহাম্মদ : কাতার প্রতিনিধি

বাংলাদেশ ও কাতারের মধ্যে ৫০ বছরের সফল কূটনৈতিক সম্পর্ক উদযাপন এবং কাতারের মহামান্য আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানির বাংলাদেশে ঐতিহাসিক সফল সফর উপলক্ষে, রিলায়েন্ট ইভেন্টস এন্ড এক্সিবিশন ম্যানেজমেন্ট এবং বাংলা ইভেন্ট ইন্টারন্যাশনাল-এর সহযোগিতায় কাতারস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস ক্রাউন প্লাজার সেমিনার হল হিকমা তে “বাংলাদেশ ট্রেড ফেয়ার কাতার ২০২৪” এর উদ্বোধন উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। মান্যবর রাষ্ট্রদূত জনাব নজরুল ইসলাম অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন। রিল্যায়েন্ট ইভেন্টস সিইও জনাব এম এ মুরাদ হোসেইন, বাংলাদেশ হতে আগত মেলায় অংশগ্রহনকারী সংস্থার সদস্য, বাংলাদেশ কমিউনিটির সদস্য, কাতারস্থ অন্যান্য দেশের কমিউনিটির সদস্য, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সদস্য সহ বাংলাদেশ দূতাবাসের কর্মকর্তাগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

মান্যবর রাষ্ট্রদূত উদ্বোধনী বক্তব্যে “বাংলাদেশ ট্রেড ফেয়ার কাতার ২০২৪” আয়োজন এর গুরুত্ব তুলে ধরার পাশাপাশি এই আয়োজনের মাধ্যমে বাংলাদেশে বিনিয়োগ এর সম্ভাবনা তৈরি হবে বলে তিনি বিশ্বাস করেন। তিনি আরও উল্লেখ করেন যে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মাণে বাংলাদেশের অর্জন বিদেশের মাটিতে প্রদর্শনের সুযোগ এধরণের আয়োজনের মাধ্যমে দূতাবাস করে থাকে। তিনি ভবিষ্যতে এমন আয়োজনের ধারাবাহিকতা বজায় রাখার কথা ব্যক্ত করেন। মান্যবর রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশ ও কাতারের মধ্যে এই ঐতিহাসিক সম্পর্কের উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত “বাংলাদেশ ট্রেড ফেয়ার কাতার ২০২৪” -এ অংশগ্রহণ করার জন্য সকলকে আমন্ত্রণ জানান।

বাংলাদেশ এর আবাসন ও পর্যটন খাতের সম্ভাবনা তুলে ধরে রিল্যায়েন্ট ইভেন্টস এন্ড এক্সিবিশন ম্যানেজমেন্ট এর সিইও জনাব এম এ মুরাদ হোসেইন বাংলাদেশে রেমিটেন্স বৃদ্ধিতে এমন আয়োজন খুবই গুরুত্বপূর্ন বলে অভিমত ব্যক্ত করেন এবং মেলা সফল ভাবে আয়োজনে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

অতঃপর সকলের উপস্থিতে মান্যবর রাষ্ট্রদূত জনাব নজরুল ইসলাম অনুষ্ঠানে ফিতা কেটে ‘বাংলাদেশ ট্রেড ফেয়ার কাতার ২০২৪” এর উদ্বোধন করেন। ৩ দিন ব্যাপী এই ট্রেড ফেয়ারে বাংলাদেশ ও কাতারের মধ্যকার বহুমুখী ব্যবসায়িক সম্ভাবনা ও বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগের উপর সেমিনার ও “বিজনেস টক” এর আয়োজন করা হয়েছে। এছাড়াও বাংলাদশের সমৃদ্ধ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে ছড়িয়ে দিতে মেলায় বাংলাদেশী শিল্পীদের অংগ্রহনে মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়জন করা হয়েছে।

শেয়ার করুন:

আরও খবর

Sponsered content