দেশজুড়ে

সিরাজগঞ্জ প্রেসক্লাবের নির্বাচনী কার্যক্রম স্থগিত আদালতের নিষেধাজ্ঞা প্রদান।

ডেস্ক রিপোর্ট

১৭ মার্চ ২০২৩ , ১০:২২:০৭ প্রিন্ট সংস্করণ

 

সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:

সিরাজগঞ্জ প্রেসক্লাবের নতুন অন্তর্ভূক্ত বৈধ ১৯ জন সদস্যকে বাদ দিয়ে অগঠনতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় আহবায়ক কমিটি গঠন করে চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করলে ৭ মার্চ মঙ্গলবার দৈনিক যুগান্তরের জেলা প্রতিনিধি জেহাদুল ইসলামগং একটি মামলার দায়ের করেন। মোকদ্দমা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত বিবাদীগণ সিরাজগঞ্জ প্রেসক্লাবে যেন কোন কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন করতে না পারে সে মর্মে আহবায়ক কমিটি, নির্বাচন কমিশন ও নির্বাচন ট্রাইব্যুনালের ওপর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আদেশ দিয়েছেন আদালত। বুধবার সকালে সদর সিনিয়র সহকারী জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ সুলতান উদ্দিন প্রধান এ আদেশ দেন।
এর আগে বাদীপক্ষের আইনজীবি রেজাউল করিম রাখাল এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, বাদীপক্ষের ন্যায় বিচারের স্বার্থে মোকদ্দমা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত প্রেসক্লাবে কোন কার্যনিবার্হী কমিটি যেন গঠন করতে না পারে সে জন্য সকল বিবাদীগণকে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আদেশ দিয়েছেন আদালত।৯ মার্চ বৃহস্পতিবার শুনানীর দিন ধার্য্য করা হয়। তবে বিবাদীপক্ষ এক দরখাস্ত দ্বারা সময়ের প্রার্থনা করলে নির্বাচনী কার্যক্রমের উপর স্থিতিবস্থা বজায় রাখার নির্দেশ দিয়ে ১৪ মার্চ শুনানীর দিন ধার্য্য করেন আদালত। মামলার আরজি সূত্রে জানা যায়, নতুন অন্তর্ভূক্ত ১৯জন সদস্য দীর্ঘদিন ধরে দেশের বহুল প্রচারিত দৈনিক ও বেসরকারি টিভি চ্যানেলে সুনামের সাথে কাজ করে আসছেন। পেশাদার সাংবাদিক হওয়া সত্বেও প্রেসক্লাবের একটি চক্রের কারণে তারা বারবার প্রেসক্লাবে সদস্য পদের আবেদন করেও কোন ফল পাননি। তবে, বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটি নতুন সদস্য নেওয়ার জন্য সার্চ কমিটি গঠন করে সকল কাগজপত্র যাচাই-বাছাইয়ের মাধ্যমে ৫ ডিসেম্বর-২০২২ইং তারিখে ১৯জনকে সদস্যপদ প্রদান করেন। এরপর ওই চক্রটি নানা ষড়যন্ত্র ও বিরোধিতা করে বৈধভাবে নেওয়া ১৯ সদস্যকে বাদ দিয়ে অবৈধভাবে একটি বৈঠক করে আহবায়ক কমিটি গঠন করেন। শুধু তাই নয়, বৈধভাবে নেওয়া ১৯ সদস্যকে বাদ দিয়ে চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ এবং নির্বাচন কমিশন ও ট্রাইব্যুনাল গঠন করে আগামী ২৩ মার্চ পাতানো নির্বাচন করার পাঁয়তারা করছেন। এ ব্যাপারে জেহাদুল ইসলামগং বলেন, একটি স্বার্থান্বেষী চক্র জেলার কর্মরত সাংবাদিকদের একমাত্র প্রিয় সংগঠন সিরাজগঞ্জ প্রেসক্লাবকে কুক্ষিগত করে রাখতে চান। এরই ধানাবাহিকতায় নতুন ১৯জন সদস্যকে বাদ দিয়ে চক্রটি অগঠণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় পাতানো নির্বাচনের পাঁয়তারা করছিলেন। এ নিয়ে বারবার কথা বলেও কোন কাজ হয়নি। তাই আমরা সঠিক বিচারের জন্য আদালতের শরণাপন্ন হই তদন্তের সাপেক্ষে সুষ্ঠু বিচার চাই।

শেয়ার করুন:

আরও খবর

খুলনা সিটি কর্পোরেশন উদ্দ্যেগে অপসারণখুলনা সিটি

রমজানকে ঘিরে ঈদগাঁওতে নিত্যপণ্যের দ্বিগুন দাম : বিপাকে ক্রেতারা

১০ হাজারেরও অধিক নেতাকর্মী নিয়ে আওয়ামী লীগের ‘প্লাটিনাম জয়ন্তী’ অনুষ্ঠানে খসরু চৌধুরী এমপির অংশগ্রহণ

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ নাট্যশিল্পী সমিতির উদ্যোগে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান প্রধান অতিথি পারভীন ওসমান ফাতেমা আক্তার মাহমুদা ইভা : মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ নাট্যশিল্পী সমিতির আয়োজনে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি পারভীন ওসমান ও প্রধান আলোচক জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার মহাসচিব খন্দকার মাসুদুর রহমান দিপু। ২৫ ডিসেম্বর সোমবার সন্ধা ৬টায় ২০২৩ নারায়ণগঞ্জ নাট্যশিল্পী সমিতির আয়োজনে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে জাঁকজমকপূর্ণভাবে এ আয়োজন অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মাসুদ রানা মিন্টুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য পারভীন ওসমান। এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ওসমান পরিবারের পুত্রবধু প্রয়াত নাসিম ওসমানের সহধর্মীনী জনাবা পারভীন ওসমান। প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার মহাসচিব ও দৈনিক অপরাধ রিপোর্ট পত্রিকার সম্পাদক খন্দকার মাসুদুর রহমান দিপু। এ সময় সভায় সাংবাদিক সোনিয়া দেওয়ান প্রীতির সঞ্চালনায় এবং সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মাসুদ রানা মিন্টুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রতিষ্ঠাতা সভাপতিত্বে। বিশেষ অতিথি হিসেবে উস্থিত ছিলেন ল্যাব এ্যাইড নারায়ণগঞ্জ শাখার ব্যাঞ্চ ম্যানেজার মাকসুদুল আলম সোহেল। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য পারভীন ওসমান। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বলেন রাজাকার আলবদরদের কাছ থেকে বাংলাদেশ স্বাধীন করতে যিনি অগ্রনী ভুমিকা রেখেছিলেন তিনি আমার মহান নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। লাখো শহীদের রকেতর বিনিময়ে অর্জিত এই স্বাধীনতা। তিনি আরো বলেন আগামী ৭ জানুয়ারী দেশে দ্বাদশ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে সেখঅনে আমার ভোট আমি দিবো যাকে খুশি তাকে দিবো কিন্তু দেশের উন্নয়নের স্বার্থে আমরা নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে পুনরায় জননেত্রী শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাই। দেশে অনেক উন্নয়ন হয়েছে আর উন্নয়নের ধঅরাবাহিকতা বজায় রাখতে শেখ হাসিনার বিকল্প হতে পারে না। পরিশেষে তিনি আরো বলেন আমিও রাজনীতি পরিবারের মেয়ে এবং আমার বিয়ে হয়েছে রাজনীতি পরিবারে। নারায়ণগঞ্জে ওসমান পরিবারের যে পরিবারের আমি পুত্র বধু হতে পেরে আমি নিজেকে ধন্য মনে করি। আমার স্বামি প্রয়াত নাসিম ওসমান স্মরনে একটি সেতু হয়েছে তাই প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার আর কোন চাওয়া পাওয়া নেই। সভাশেষে তিনি কিছুক্ষন আয়োজিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন। এই সময় আরো উপস্থিত ছিলেন এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মানবাধিকার কর্মী, রোটারিয়ান ও সুলতান আহমদ মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশনের সভাপতি ফেরদৌসী আক্তার রেহানা, আওয়ামী মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আবুল কালাম ফেরদৌস। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সাংগঠনের সাধারণ সম্পাদক হক সোহেল,জাতীয় সংস্থা সাংকেতিক সম্পাদক খোকন, কাব্য সাহিত্য ও সংস্কৃতি চর্চা শফিকুল ইসলাম আরজু, জাতীয় সংস্থা সহ মহিলা সম্পাদক এবং সদর উপজেলা প্রেসক্লাব পচারক সম্পাদক ফাতেমা আক্তার মাহমুদা ইভা, আলোচনা সভা শেষে দেশাত্মবোধক গান ও নৃত্য পরিবেশন করেন সংগঠনের শিল্পীবৃন্দ ও অতিথি শিল্পীগণ।

বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠন ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত।

ইবির পিকনিক বাসে ইট নিক্ষেপ আহত শিক্ষক ও মেয়ে

Sponsered content