দেশজুড়ে

স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে প্রধানমন্ত্রীকে সমর্থন অব্যাহত রাখতে হবে: রবি ভিসি।

ডেস্ক রিপোর্ট

২৬ মার্চ ২০২৩ , ৮:১৪:৫৬ প্রিন্ট সংস্করণ

 

মো: জাকারিয়া হোসেন শাহজাদপুর সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি:

সিরাজগঞ্জ জেলার রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করা হয়েছে। আজ রোববার (২৬ মার্চ-২০২৩খ্রী:) সকালে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে এ দিবস উদযাপন করা হয়।
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে রবির উপাচার্য (ভিসি) প্রফেসর ড. মোঃ শাহ্ আজম বলেন, জাতির পিতা হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বাধীনতা লাভ করেছে। বিগত বায়ান্ন বছরে তারই সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সক্ষম হয়েছি। ২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের পথে এগিয়ে যাচ্ছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে স্মার্ট বাংলাদেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠার জন্য প্রতিজ্ঞা বদ্ধ। ক্ষুধা দারিদ্র মুক্ত সুখী সমৃদ্ধ স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলতে শেখ হাসিনাকে সর্বতো সমর্থন অব্যাহত রাখতে হবে। এক্ষেত্রে রাষ্ট্রের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের দেরকেও মানবিক মূল্যবোধ ও প্রযুক্তি গত জ্ঞান অর্জনের জন্য মনোনিবেশ করতে হবে। তিনি রবির সকল শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে কাজ করার আহ্বান জানান।
এ সময় রবির রেজিস্ট্রার সোহরাব আলী, শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. মোঃ ফখরুল ইসলাম ও শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা, কর্মচারী বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এরপর বর্ণাঢ্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা সংগীত ও নৃত্য পরিবেশন করে।

শেয়ার করুন:

আরও খবর

ঠাকুরগাঁওয়ে নানা আয়োজনে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালিত।

কুমিল্লায় অবৈধভাবে গোমতী নদীর মাটি কাটায় তিন লক্ষ টাকা জরিমানা

শাহজাদপুর পোতাজিয়া বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা -২০২৩ খ্রীঃ অনুষ্ঠিত।

মধুখালীতে সরকারি আইনুদ্দিন কলেজের বার্ষিক সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

এনভয় গ্রুপের চেয়ারম্যান ও সমাজসেবক মিসেস সারমিন সালামের উঠান বৈঠক

১৪ই ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন দৌলতপুর উপজেলা প্রশাসনের   মো: আমিনুল ইসলাম, স্টাফ রিপোর্টার, দৌলতপুর মানিকগঞ্জ।   মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর উপজেলায়  শহীদ বুদ্ধিজীবী বুদ্ধি দিবস পালন করে উপজেলা প্রশাসন   ১৪(ডিসেম্বর)সকাল ৮ টায়  শহীদদের প্রতি ফুল দিয়ে  শ্রদ্ধা জানায়  দৌলতপুর উপজেলা প্রশাসন, দৌলতপুর থানা  সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।    পরে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উদযাপন উপলক্ষে উপজেলা পরিষদের হল রুমে আলোচনা  সভার আয়োজন করা হয় । অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করছেন উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা জনাব আশিকুর রহমান চৌধুরী।এসময় বক্তব্য রাখেন -সদ্য যোগদানকৃত থানা অফিসার ইনচার্জ ওসি সুমন কুমার আদিত্য, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা:হাসিন আহমেদ, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ রেজাউল হক, বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট আবুল কাশেম, বীরমুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম , প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ শাহ আলম, বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ রেজাউল করিম প্রমুখ। অফিসার্স ইনচার্জ সুমন কুমার আদিত্য বলেন ১৪ই ডিসেম্বরের যে নীশংস হত্যাকান্ড চালিয়েছে তা জাতিকে মেধাশূন্য করার লক্ষ্য ছিল মূল উদ্দেশ্য।   সভাপতিত্ব বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশিকুর রহমান বলেন একটা জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান হচ্ছে দেশের বুদ্ধিজীবীরা, আর সে বুদ্ধিজীবীদের নিসংস ভাবে হত্যা করা হয়  তাহলে আর রাষ্ট্রের কি থাকে।

১৪ই ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন দৌলতপুর উপজেলা প্রশাসনের মো: আমিনুল ইসলাম, স্টাফ রিপোর্টার, দৌলতপুর মানিকগঞ্জ। মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর উপজেলায় শহীদ বুদ্ধিজীবী বুদ্ধি দিবস পালন করে উপজেলা প্রশাসন ১৪(ডিসেম্বর)সকাল ৮ টায় শহীদদের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় দৌলতপুর উপজেলা প্রশাসন, দৌলতপুর থানা সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। পরে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উদযাপন উপলক্ষে উপজেলা পরিষদের হল রুমে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয় । অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করছেন উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা জনাব আশিকুর রহমান চৌধুরী।এসময় বক্তব্য রাখেন -সদ্য যোগদানকৃত থানা অফিসার ইনচার্জ ওসি সুমন কুমার আদিত্য, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা:হাসিন আহমেদ, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ রেজাউল হক, বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট আবুল কাশেম, বীরমুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম , প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ শাহ আলম, বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ রেজাউল করিম প্রমুখ। অফিসার্স ইনচার্জ সুমন কুমার আদিত্য বলেন ১৪ই ডিসেম্বরের যে নীশংস হত্যাকান্ড চালিয়েছে তা জাতিকে মেধাশূন্য করার লক্ষ্য ছিল মূল উদ্দেশ্য। সভাপতিত্ব বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশিকুর রহমান বলেন একটা জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান হচ্ছে দেশের বুদ্ধিজীবীরা, আর সে বুদ্ধিজীবীদের নিসংস ভাবে হত্যা করা হয় তাহলে আর রাষ্ট্রের কি থাকে।

Sponsered content