দেশজুড়ে

সিলেট অঞ্চলের তৎকালীন শ্রেষ্ঠ বুজুর্গ হুফ্ফাজে কোরআন আল্লামা হাফিজ মোশাহিদ আলী বারগাত্তার হাফিজ মেছাব ক্বিবলাহ(রহ,) হাফিজ মাছুম আহমদ দুধরচকী

ডেস্ক রিপোর্ট

১৪ মার্চ ২০২৩ , ১১:৫৯:৪৭ প্রিন্ট সংস্করণ

 

কুতুবুল আউলিয়া হুফ্ফাজে কোরআন হাজার হাজার হাফিজ গণের উস্তাদ ও আমার প্রিয় শ্রদ্ধাবাজন উস্তাদ কোরআন শরীফের এক মহান খাদিম ছিলেন উস্তাজুল হুফ্ফাজ হাফিজ মোশাহিদ আলী বারগাত্তার হাফিজ মেছাব ক্বিবলাহ (রহ,)জকিগঞ্জ সিলেট।

বারগাত্তার হাফিজ মেছাব অন্দ হাফিজ মেছাব নামে পরিচিত ছিলেন।

তিনির জীবনের প্রায় সত্তরটি বছর একাধারে কোরআন শরীফের খেদমত করেছেন, চোখে না দেখেও থামেনি এই মনীষীর কোরআন শরীফের খেদমত,যার ফলে আজ সারা বিশ্বে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছেন হাজারো হাফেজে কোরআন।

হুফ্ফাজে কোরআন আল্লামা হাফিজ মোশাহিদ আলী বারগাত্তার হাফিজ মেছাব ক্বিবলাহ(রহ,)
আল্লাহর প্রিয় এই মকবুল ওলির অনেক কেরামতি আমরা দেখেছি ও শুনেছি যখন নয়াবাজার বারগাত্তা হাফিজি মাদ্রাসায় বারগাত্তার হাফিজ মেছাবের কাছে পড়িথাম তখন বারগাত্তার হাফিজ মেছাবের অনেক কেরামতি দেখেছি ও আমি অদম হাফিজ মেছাবের সামান্য কিছুদিন খেদমত করার সুযোগ পেয়েছি তাই মহান আল্লাহর দরবারে শুকরিয়া আদায় করছি, ও সেই গ্রামের অনেক মুরব্বি মানুষ এই মকবুল ওলির কেরামতির কথা বলতেন আমাদের কাছে।

বারগাত্তার হাফিজ মেছাব সম্পর্কে এশিয়া উপমহাদেশের হাদীস বিশারদ শায়খুল হাদিস আল্লামা হবিবুর রহমান মুহাদ্দিস ছাহেব কিবলাহ বলতেন দুনিয়ার জমিনে বেহেশতী মানুষ দেখার ইচ্ছা হলে বারগাত্তার হাফিজ সাহেবকে দেখে আসো সুবহানাল্লাহ।

দোয়া করি মহান আল্লাহ তায়ালার দরবারে আল্লাহর এই মকবুল ওলি ও আমার প্রিয় উস্তাদ কে জান্নাতের উচ্চ মাকাম দান করেন আল্লাহুম্মা আমিন।
শেয়ার করুণ, যাতে সবাই এক নজর দেখতে পারেন, আল্লাহর এই মকবুল ওলি কে।

লেখক: বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ লেখক ও কলামিস্ট হাফিজ মাছুম আহমদ দুধরচকী।

শেয়ার করুন:

আরও খবর

Sponsered content

চাঁপাইনবাবগঞ্জের সাবেক কাউন্সিলর খায়রুল আলম জেমকে কুপিয়ে হত্যা।

রাজবাড়ীতে নারীসহ ৩ মাদক কারবারি গ্রেপ্তার! হেরোইন ও ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার

তাহিরপুর সীমান্তে ভারতীয় মদ, কয়লা, মটর সাইকেল এবং ঠেলাগাড়ী আটক

রাঙ্গাবালীতে মুজিব বর্ষের ঘর পেলেন ১১৮টি পরিবার, ভূমিহীনমুক্ত হলো উপজেলা

পাইকগাছায় মহিলা মাছ ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে আহত মোঃ শফিয়ার রহমান পাইকগাছা (খুলনা) খুলনার পাইকগাছায় দীর্ঘদিনের দাদনের টাকা ফেরত চাওয়ার অপরাধে মিতা রাণী মন্ডল (৩০) মহিলা চিংড়ী ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার সকাল ৯ টার দিকে উপজেলার দক্ষিণ কাইনমুখী গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। মিতা মন্ডল স্থানীয় ঘের মালিক পরিমল সর্দারেরকে ঘেরের মাছ মিতা রানীর কাছে বিক্রয় করবে মর্মে ২৫ বছর আগে ৫০ হাজার টাকা দাদন দেন। এদিকে মাছ বা টাকা বারবার তাকাদা দিলেও পাওনা টাকা ফেরৎ দিতে নানা তালবাহানা করে আসছে পরিমল।ঘটনার দিন মিতা রানী চিংড়ী মাছ কিনে বাড়ি ফেরার পথে তার বাড়ীতে তাকাদা দিতে গেলে পরিমলের সাথে কথা-কাটাকাটির এক পর্যায়ে তাকে ইট দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে এবং এবং প্রাণনাশের হুমকি দেয়। মিতা রানী পাইকগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে থেকে চিকিৎসা নিয়েছেন।এ বিষয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ হয়েছে। পাইকগাছা থানার ডিউটি অফিসার ব্রজ কিশোর পাল জানান,অভিযোগ পেয়েছি। এ ব্যাপারে পরিমল বলেন,এধরণের কোন ঘটনা ঘটেনি। সে আমার কাছে ৭৫০২ টাকা পাবে। আমার নামে মিথ্যা অভিযোগ করছে।

গোয়ালন্দে ঐতিহাসিক মুজিব নগর দিবস পালিত